ঢাকায় বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের উপর হামলার প্রতিবাদে নিরাপদ বাংলাদেশ চাই ইউকের প্রতিবাদ সভা

Spread the love

বাংলা সংলাপ ডেস্কঃ ঢাকায় বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের উপর আওয়ামী পুলিশ কর্তৃক হামলা ও নির্যাতনের তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তারা বলেন আওয়ামী লীগ চায় বিরোধী দলকে ধমন করে বাকশাল তৈরি করতে।
গত ২৪শে আগস্ট রোজ মঙ্গলবার বিকাল তিন ঘটিকার সময় পূর্ব লন্ডনে একটি হলে নিরাপদ বাংলাদেশ চাই ইউকে শাখার উদ্দোগে ঢাকায় বিরোধী দলীয় নেতা কর্মীদের উপর ঘৃণ্য বর্বরোচিত সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের নব নির্বাচীত সভাপতি মুসলিম খান। সভা পরিচালনা করেন বি.এম.এম তামজিদ। সভায় প্রধন অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যুবদলের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা, সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সহ সভাপতি আশিকুর রহমান আশিক, প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন হাজী এম,এ সালাম, সহ সভাপতি কেন্দ্রীয় জাসাস, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন তাজবীর চৌধুরী শিমুল, সাধারণ সম্পাদক যুক্তরাজ্যা জাসাস,দিলোয়ার হোসেন,সেক্রেটারী, অনলাইন একটিভিস্ট ফোরাম ইউকে,মোহাম্মদ আশিকুর রহমান তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইস্ট লন্ডন বিএনপি। ফারিয়া আক্তার সুমি,সহ সাধারণ সম্পাদক ইস্ট লন্ডন যুবদল।
প্রতিবাদ সভায় প্রধাঅতিথি আশিকুর রহমান আশিক বলেন,ঢাকায় বিএনপির উপর হামলা করে আওয়ামীলীগ আবারও প্রমাণ দিয়েছে তারা ভারতের তাবেদার সরকার। পুলিশকে তারা সন্ত্রাসী বাহিনীতে পরিনত করে পেলেছে। প্রধান বক্ত হাজী এম,এ সালাম বলেন বিশ্বের মিডিয়া দেখেছে ঘৃণ্য ও ন্যাক্কার জনক হামলার হুকুম দাতা শেখ হাছিনার বিচার চাই। তারা বিরোধীদলীয় কোন কর্মসূচী পালন করতে দেওয়া হয়না। তারা বাংলাদেশে আবার বাকশাল বানাতে চায় শহীদ জিয়ার আদর্শের সৈনিক থাকতে তা হতে দেওয়া হবেনা।
বিষয় অতিথির বক্তব্যে তাজবীর চৌধুরী শিমুল বলেন আওয়ামী লীগ সরকারের দিন শেষ হয়ে আসছে। আর বেশি দিন নয় আওয়ামী লীগ কে বাংলাদেশ খুঁজে পাওয়া যাবেনা। সভাপতি মুসলিম খান বলেন, হামলা, মামলা দিয়ে বিরোধী দলকে শেষ করতে পাবেনা ১৫ আগস্টের মত আর একটি রাত প্রয়োজন।

উক্ত সভায় আর বক্তব্যে রাখেন নিবাচা’র সহ সভাপতি রায়হান উদদীন, ইস্ট লন্ডন যুবদলের সহ সভাপতি মোঃআরজানুজ্জামাম, জাস্টিয ফর ভিকটিমের সহ সভাপতি সৈয়দ মোজাক্কির আহমদ, নিবাচা’র য় সাংগঠনিক সম্পাদক বুরহান উদদীন চৌধুরী,সাবেক শিবির নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোঃআসায়াদুল হক,মোঃইকবাল হোসেন,মোঃফরহাদ আলী, মুঃদেলোয়ার হোসাইন, মোঃমিসবাহুল ইসলাম জুনেদ,ফয়েজ আহমদ, মোঃমশিউর রহমান,মোঃ হাসান শেখ,লিয়াকত আলী,মোঃআমিনুল ইসলাম সফর,মোঃমাহবুুবুর রহমান এবাদুর রহমান, মোঃহাসান আহমদ, ইআরআই’র অফিস সেক্রেটারী মোঃআবুজাফর আব্দুল্যাহ,ইস্ট লন্ডন সিটি যুবদলের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, শেখ খুরশিদুল আলম,তোফায়েল আহমেদ,মোঃশাহজাহান আহমদ, জামায়াত নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মানবাধিকার কর্মী মোহাম্মদ আলী,নাজির আহমেদ,রুহেল আহমদ সুমন,খালেদ হুসাইন, ছাবের আহমদ, মোঃআলম আহমদ,
বিএনপির নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বুরহান উদদীন, মোঃআবদুল কাদের জিলানী,জহুরুল ইসলাম, চৌধুরী তাকি তাজওয়ার।
সাবেক ছাত্রদল নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আলী উজ্জ্বল, ফয়সল আহমদ, শাহীন আহমদ, মিন্টু মিয়া, সেলিম আহমদ, আব্দুল্লাহ আল মামুন, ছালাম হুসাইন,আব্দুল হামীদ, মোঃ আব্দুল মুকিত।

সেচছাসেবকের মধ্যে বক্তব্য আবু খালেদ, মোহাম্মদ মোশাররফ হোসাইন, সাহেদ আহমেদ চৌধুরী।
মানবাধিকার কর্মীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোঃফাহাদুজ্জামাম,চৌধুরী তাহমিনা রহমান, সেবুল আহমদ, ফরহাদ আহমদ, মঈনুল ইসলাম,নাজমুল হাছান আদিল,মোঃসুয়াইবুর রহমান লায়েক।
এছাড়া আর উপস্থিত ছিলেন মানবাধিকার কর্মী নিবাচা’র নতুন সেক্রেটারী তাহমিদ হোসেন খান,সেচছাসেবক নেতা হাবিবুর রহমান, মোঃতারেক হোসেন, মোঃরাশেদুজজামান,সুহেল আহমদ, মোঃইমন মিয়া,আনোয়ার মিয়া, মোঃআবুল কালাম, নন্দন দে, জামায়াত নেতা মিফতা উদ্দীন,শিবিরের সাবেক নেতা সাইদুর রহমান, আবু তাহের,সাইফুর রহমান রাজু, সাবেক ছাত্রদল নেতা আশফাক আহমদ জবলু,মোঃঅলি আহমদ, মোঃসাইফুল আরেফিন জুনেদ,মোঃতানভির এহসান সহ বিভিন্ন সংগঠনের মানবাধিকার কর্মী, সাংবাদিক, ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ প্রমূখ।
সভা শেষে যুক্তরাজ্য জাসাসের সাধারণ সম্পাদক তাজবীর চৌধুরী শিমুল বাবা সহ সকল মরহুমদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন মাওলানা সাইফুল আলম।


Spread the love

Leave a Reply